নিখোঁজ দুরন্ত বিপ্লবের মরদেহ ভেসে উঠলো বুড়িগঙ্গায়

0
61
দুরন্ত বিপ্লব

নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় বুড়িগঙ্গা নদীতে ভাসমান অবস্থায় পাওয়া মরদেহটি কৃষি খামারি দুরন্ত বিপ্লবের৷ তিনি জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক৷

নিহত দুরন্ত বিপ্লব (৫১) নেত্রকোনা জেলার পূর্বধলার ছোট ইলাশপুরের প্রয়াত আব্দুল মান্নানের ছেলে৷ তার পরিবারের সদস্যরা ঢাকায় থাকেন।

মরদেহ উদ্ধার করা ফতুল্লার পাগলা নৌ-ফাঁড়ির ইনচার্জ পরিদর্শক শাহজাহান আলী গণমাধ্যমে বলেন, ‘শনিবার বিকেলে পাগলা ঘাট থেকে মরদেহটি উদ্ধার করা হয়৷ রাত ১২টার দিকে কেরানীগঞ্জ থানা পুলিশের সঙ্গে যোগাযোগ করেন স্বজনরা৷ পরে রাত ৩টায় নারায়ণগঞ্জ এসে নিহতের ছবি দেখে মরদেহের পরিচয় শনাক্ত করেন স্বজনরা৷’

‘স্বজনরা জানিয়েছেন, দুরন্ত বিপ্লব গত ৭ নভেম্বর থেকে নিখোঁজ ছিলেন৷ মরদেহটি ময়নাতদন্তের জন্য নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে। ময়নাতদন্তের পর পরিবারের মতামতের পরিপ্রেক্ষিতে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে’, যোগ করেন তিনি।

নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা (আরএমও) ডা. শেখ ফরহাদ গণমাধ্যমে বলেন, ‘আজ দুপুর ১টায় মরদেহটির ময়নাতদন্ত হবে৷ ময়নাতদন্তের পর মৃত্যুর কারণ সম্পর্কে বলা যেতে পারে।’

মরদেহ উদ্ধারের পর নৌ-পুলিশের পরিদর্শক শাহজাহান আলী বলেছিলেন, ‘অন্তত ৪৮ ঘণ্টা আগে তার মৃত্যু হয়েছে বলে ধারণা করছি। মরদেহ ফুলে চেহারা বিকৃত হয়ে গেছে। মাথায় লালচে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।’

নিহতের স্বজনরা জানান, বিপ্লব একজন কৃষি খামারি ছিলেন৷ জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক দুরন্ত বিপ্লব আওয়ামী লীগের কৃষি ও সমবায় উপকমিটিরও সদস্য ছিলেন৷ গত ৭ নভেম্বর সন্ধ্যায় কেরানীগঞ্জ থেকে মোহাম্মদপুরে মায়ের বাসায় যাওয়ার উদ্দেশে বের হওয়ার পর থেকে তিনি নিখোঁজ ছিলেন। নিখোঁজের আগে তার মোবাইল ফোনের সর্বশেষ লোকেশন ছিল কামরাঙ্গীরচরের মুসলিমবাগ৷

বিপ্লবের ছোট বোন শ্বাশতী বিপ্লব তার ফেসবুক একাউন্টে লিখেছেন, ‘এমন মৃত্যু ভাইয়া ডিজার্ভ করে না। কোনোদিন না। নারায়ণগঞ্জের পাগলাঘাটে কচুরিপানার ওপর এমন অসহায়ভাবে ভেসে থাকতে পারে না দুরন্ত বিপ্লব নামের কিংবদন্তিতূল্য ভাইটা আমার। সারাজীবন নিজের খেয়ালের রাজা ও। যারা ওকে চেনে, তারা জানে, কী প্রবল আত্মসম্মানবোধ ছিল ওর। নারায়ণগঞ্জের ভিক্টোরিয়া জেনারেল হাসপাতালের মর্গে আছে এখন। আমরা কাল রাত ৩টায় সেই ছবি দেখে এসেছি। দূর্জয়, ইমরুলরা ওকে আনতে গেছে। ৭ তারিখেই ও চলে গেসিলো আমাদের ছেড়ে। কামরাঙ্গীরচর থেকে পাগলা পর্যন্ত ভেসে যেতে ওর ৫ দিন লেগেছে।’

তিনি আরও লিখেছেন, ‘জানাজা বাদ আছর মোহাম্মদপুরের জাপান গার্ডেন সিটির মসজিদের সামনে হবে। যারা সামিল হতে চান, আসবেন।’

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে