সার্ক চলচ্চিত্র উৎসবে ফজলে আজিম জুয়েল’র ‘বিশ্ব আঙিনায় অমর একুশে’ মনোনীত

0
9

১৯৫২ সালের রাষ্ট্রভাষা আন্দোলন, তার পূর্ববর্তী ও পরবর্তী প্রেক্ষাপট এবং ২১ শে ফেব্রুয়ারি ভাষা শহীদ দিবস থেকে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস হয়ে উঠার গল্পে ২০১৬ সালে শ্যামল দত্তের রচনায় ‘বিশ্ব আঙিনায় অমর একুশে’ নামে একটি প্রামাণ্যচিত্র নির্মাণ করেন বাংলাদেশ টেলিভিশনের নির্বাহী প্রযোজক ফজলে আজিম জুয়েল।

বাংলাদেশ টেলিভিশনের জন্য নির্মিত এই প্রামাণ্যচিত্রটি ২০১৭ সালে ‘প্রামাণ্যচিত্র বিভাগে’ শ্রেষ্ঠ প্রামাণ্যচিত্র হিসেবে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার অর্জন করে।

প্রামাণ্যচিত্রটির মধ্য দিয়ে দীর্ঘ ৩৫ বছর পর বাংলাদেশ টেলিভিশন এই পুরস্কার অর্জন করে। এর আগে ১৯৮২ সালে স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র বিভাগে এ পুরস্কার অর্জন করেন ম. হামিদ।

২০১৯-এ অনুষ্ঠিত জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার অনুষ্ঠানে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নিকট থেকে পুরস্কার গ্রহণের মুহূর্তে ফজলে আজিম জুয়েল।

দেশের সীমানা ছাড়িয়ে ২০১৯ এ ভারতে অনুষ্ঠিত প্রথম বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উৎসবে প্রদর্শিত হয় ফজলে আজিম জুয়েল নির্মিত এই প্রামান্যচিত্রটি । এবার ১০ম সার্ক আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে মনোনয়ন পেয়েছে এটি।

দেশের সর্বোচ্চ স্বীকৃতি অর্জনের পাশাপাশি আন্তর্জাতিক অঙ্গনে নিজের কাজের এমন অর্জন প্রসঙ্গে ‘বিশ্ব আঙিনায় অমর একুশে’ প্রামাণ্যচিত্রটির নির্মাতা ফজলে আজিম জুয়েল বলেন, একজন বাঙালি এবং বাংলাভাষি হিসেবে আমি গর্ববোধ করি। বাংলা ভাষার স্বীকৃতি অজর্নের জন্য যে ত্যাগ আমরা করেছি তার একটি দলিল ‘বিশ্ব আঙিনায় অমর একুশে’। আমি সত্যিই আনন্দিত এরকম একটি প্রামাণ্যচিত্র নির্মাণ করতে পেরে। আন্তর্জাতিকভাবে এটির প্রদর্শনী আমিসহ সংশ্লিষ্ট সকলের জন্য অনেক গর্বের।’

দেশের সর্বোচ্চ স্বীকৃতি জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার হাতে ফজলে আজিম জুয়েল।

নিয়মিত নাটক নির্মাণের পাশপাশি বিটিভির অনুষ্ঠান প্রযোজনা ও পরিচালনা করছেন ফজলে আজিম জুয়েল। ইতিমধ্যে তার প্রযোজনা ও পরিচালনায় এবং নাট্যকার-অভিনেতা ও নির্দেশক মামুনুর রশীদের রচনায় নির্মিত হচ্ছে তারকাবহুল দীর্ঘ ধারাবাহিক নাটক ‘জিন্দাবাহার’। খুব শিগগিরই বিটিভিতে প্রচার শুরু হবে নাটকটির।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে