ব্রাহ্মণবাড়িয়া সুহিলপুর ইউপি খাল দখল চলছে: পর্ব-০১

0
150
খালটির গলা টিপে ধরা সেই বাধটি!!

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সুহিলপুর ইউপি খাল দখল চলছে: পর্ব-০১

মেইন রাস্তার পশ্চিম অংশে খালের ভীতরে স্থাপনা।

সেদিন গিয়েছিলাম ব্রাহ্মণবাড়িয়া মেডিকেল কলেজ সংলগ্ন খালটি পরিদর্শন করতে। সাথে ছিলেন নোঙর-ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা শাখার সভাপতি জনাব শামীম আহমেদ এবং জেলা শাখার অর্থ সম্পাদক শিপন কর্মকার। এক সময় দেখতাম তিতাস নদী দিয়ে বড় বড় মালবাহী ট্রলার, যাত্রীবাহী নৌকা এখানে পণ্য খালাস ও যাত্রী উঠানামা করত। বর্তমানে কেন খালটির এই অবস্থা?

পরিদর্শনে দেখতে পেলাম শুরুতে খালটির গলা টিপে ধরে রেখেছে গ্যাস ফিল্ড কর্তৃপক্ষ। ১ নং কূপ ও ২ নং কূপের মধ্যেকার পাইপ সংযোগটি এ খালটিকে গলা টিপে ধরে রেখেছে যা সম্পূর্ণ নদী আইন বিরোধী।

ডাম্পিং ষ্টেশন থাকা সত্ত্বে ও খালে মেডিকেল বর্জ্য

গ্যাস ফিল্ড কর্তৃপক্ষ ইচ্ছে করলে খালের নাব্যতা বজায় রেখেই মাটির গভীরে দিয়ে পাইপ লাইলটি স্থাপন করলে এভাবে শ্বাসরোধ্য হয়ে খালটি মরতে হত না।

দ্বিতীয়ত লক্ষ্য করা যায়, কিছু কিছু জায়গায় খালটি দখলের পায়তারা হচ্ছে এবং খালের ভীতরেও রিটার্নিং ওয়ালের অস্থিত্ব বিদ্যমান। যা খালটিকে স্থায়ী ভাবে দখলের পায়তারার নমুনামাত্র।

তৃতীয় লক্ষণীয় বিষয়, মেডিকেল কলেজের বর্জ্য ডাম্পিং ষ্টেশন থাকা সত্ত্বেও যত্রতত্র ভাবে মেডিকেল বর্জ খালের ভিতরে ফেলা হচ্ছে। চতুর্থ লক্ষনীয় বিষয়, মেইন রোডের পশ্চিমে খালের উপর অবৈধ স্থাপনা (দোকানপাট) গড়ে উঠেছে।

আস্তে আস্তে খালটি সরু হয়ে যাচ্ছে।

সুহিলপুর ইউনিয়নের কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ খালের মধ্যে এটি অন্যতম গৌতমপাড়া, হরিনাদী, ঘাঠুরার বৃষ্টিকালীন সময়ে পানি নিষ্কাশনের একমাত্র ভরসা এ খালটি এভাবে চলতে থাকলে এ গুরুত্বপূর্ণ খালটি শুধু ম্যাপেই খুজে পাওয়া যাবে, বাস্তবে নয়।

মেডিকেল এর বর্জ্যের ডাম্পিং ষ্টেশন।

তাছাড়া এ খালটির পাড়ে গড়ে উঠেছে ব্রাহ্মণবাড়িয়া একমাত্র বেসরকারি মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল, যদি এখালটির শুরুর দিকে যে গলাটিপে ধরা তা থেকে মুক্ত করা হয় এবং তিতাস নদীর সমান খনন করা হয় তাহলে সদর পূর্বাঞ্চলসহ বেশ কয়েকটি উপজেলার রোগীরা এই মেডিকেল কলেজের সেবা সহজে গ্রহন করতে পারত।

আস্তে আস্তে দখলের পায়তারা।

আরেকটু মনোযোগী হয়ে সৌন্দর্য বর্ধন করলে মালয়েশিয়া, সিঙ্গাপুর হত সুহিলপুর ইউনিয়নের মেডিক্যাল কলেজ সংলগ্ন খালটি। এলাকাবাসীর প্রাণের দাবী, এই খালটি দখলদারদের হাত থেকে উদ্ধার, সীমানা নির্ধারণ ও খনন করে খালটির প্রাণ ফিরিয়ে দেওয়া হউক।

ডাম্পিং ষ্টেশন থাকা সত্ত্বে ও খালে মেডিকেল বর্জ্য ও খালের ভিতরে রিটার্নিং ওয়াল।

এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করতে পানি উন্নয়ন বোর্ডের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি।

লেখা: কামরুজ্জামান খাঁন

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে