দেশে ৭ হাজার ছাড়াল করোনায় মৃত্যু

0
6
৭ হাজার ছাড়াল করোনায় মৃত্যু।

দেশে করোনা ভাইরাসে গত ৩৮ দিনে ১ হাজার জন মারা গেছে। গত ২৪ ঘণ্টায় ৩৪ মৃত্যুর মধ্য দিয়ে মোট মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৭ হাজার ২০ জন। গত ৪ নভেম্বর দেশে মৃতের সংখ্যা ৬ হাজার ছাড়িয়েছিল। গতকাল শনিবার বিকালে সংবাদমাধ্যমে বিজ্ঞপ্তি পাঠিয়ে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পক্ষ থেকে দেশে করোনা ভাইরাস সংক্রমণ পরিস্থিতির এই সর্বশেষ তথ্য জানানো হয়।

শনিবার সকাল ৮টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় শনাক্ত ১ হাজার ৩২৯ জনকে নিয়ে দেশে করোনা ভাইরাসে মোট আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ৪ লাখ ৮৯ হাজার ১৭৮ জন হয়েছে। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হিসাবে বাসা ও হাসপাতালে চিকিত্সাধীন আরো ৩ হাজার ১৮৫ জন রোগী সুস্থ হয়ে উঠেছেন গত এক দিনে। তাতে এ পর্যন্ত সুস্থ রোগীর মোট সংখ্যা বেড়ে ৪ লাখ ১৭ হাজার ৫০৩ জন হয়েছে। ২৪ ঘণ্টায় নমুনা পরীক্ষার তুলনায় রোগী শনাক্তের হার ১০ দশমিক ৫২ শতাংশ এবং এ পর্যন্ত নমুনা পরীক্ষার তুলনায় রোগী শনাক্তের হার ১৬ দশমিক ৫৪ শতাংশ। রোগী শনাক্তের তুলনায় সুস্থতার হার ৮৫ দশমিক ৩৫ এবং মৃত্যুর হার ১ দশমিক ৪৪ শতাংশ। স্বাস্থ্য অধিদপ্তর জানিয়েছে, গত এক সপ্তাহে মৃত্যু ৬ দশমিক ১৭ শতাংশ এবং শনাক্ত রোগীর সংখ্যা ১২ দশমিক ৮৫ শতাংশ কমেছে।

বাংলাদেশে প্রথম রোগী শনাক্তের ১০ দিন পর ১৮ মার্চ প্রথম মৃত্যু-তথ্য নিশ্চিত করে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। এর মধ্যে ৩০ জুন এক দিনেই ৬৪ জনের মৃত্যু খবর জানানো হয়, যা এক দিনে সর্বোচ্চ মৃত্যু। প্রথম মৃত্যুর এক মাস পর ২০ এপ্রিল মৃতের সংখ্যা ১০০ ছাড়িয়েছিল। তা হাজার ছাড়িয়েছিল ২০ দিন পর গত ১০ জুন। এরপর এক মাসেরও কম সময়ে ৫ জুলাই আরো ১ হাজার মানুষ যোগ হয় মৃতের তালিকায়, যা সংখ্যাটি ২ হাজারের ঘরে নিয়ে তোলে। মৃতের সংখ্যা আরো ১ হাজার বাড়তে লেগেছিল আরো কম সময়। ২৩ দিনেই ২৮ জুলাই সেই সংখ্যা ৩ হাজার স্পর্শ করে। এরপর ২৫ আগস্ট মৃতের সংখ্যা ৪ হাজার এবং তার প্রায় এক মাস পর ২২ সেপ্টেম্বর মৃতের সংখ্যা ৫ হাজার ছাড়ায়। তার পরের ১ হাজারের মৃত্যুতে সময় লেগেছিল ৩৩ দিন; আরো ১ হাজার বেড়ে ৭ হাজার ছাড়াতে লাগল ৩৮ দিন।

গত ২৪ ঘণ্টায় ৩৪ মৃত্যুর মধ্যে পুরুষ ২৩ জন, নারী ১১ জন। এরমধ্যে ২৪ জনের বয়স ৬০ বছরের ঊর্ধ্বে। এছাড়া ৯ জনের বয়স ৫১-৬০ বছরের মধ্যে। আর এক জনের বয়স ছিল ৩১ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে। বিভাগ অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় মৃত ৩৪ জনের মধ্যে ঢাকা বিভাগে ২৪ জন, চট্টগ্রামে চার জন, বরিশালে এক জন, সি?লেটে দুই জন, রংপুরে দুই জন এবং ময়মনসিংহে এক জন রয়েছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে