করোনা প্রতিরোধ করতে সরকারি ডাক্তার পেটালেন পুলিশ!

0
192
দেখা হয়েছে
পাংশা উপজেলা কমপ্লেক্সে মেডিকেল অফিসার হিসেবে কর্মরত ডা. সুপ্রভ আহমেদ জরুরী ডিউটি শেষে বাড়ি ফেরার পথে পুলিশ লাঠিপেটা করে। ছবি : সংগ্রহ

মহামারি করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় সারা পৃথিবীতে চলছে ‘লকডাউন’, ‘কারফিউ’র মতো পরিস্থিতি। মহামারি করোনা ভাইরাসের কোন ঔষধের আবিস্কার না হওয়ার কারণে বিশ্বজুড়ে মৃত্যু সংখ্যা বেড়েই চলছে। করোনার পাশাপাশি তাই ভারতীয় পুলিশ দিশেহারা মানুষকে পিটিয়ে মেরে ফেলছে!!! এখন ভারতীয় পুলিশকে বাংলাদেশের পুলিশ অনুসরণ করছে!

রাজবাড়ী পাংশা মডেল থানার করোনা প্রতিরোধ কর্মকান্ড। ছবি : সংগ্রহ

ঠিক এই সময় বাংলাদেশের স্বাধীনতা দিবসের সকল কর্মসুচি স্থগিত করা হয়েছে। করোনা মহামারি মোকাবেলায় সরকারের ১০ দফা বাস্তবায়নের জন্য দেশের সস্ত্রবাহিনীর সহযোগিতায় বা্ংলাদেশের কিছু জেলায় চলছে ‘লকডা্উন’ পরিস্থি।বিশেষ করে মাদারীপুর, শিবচরসহ রাজধানীর মিরপুর টোলারবাগ, কামরাঙ্গীরচর, পলাশী বুয়েট আবাসিক এলাকাসহ বিভিন্ন এলাকায় এ পরিস্থিতি চলমান রয়েছে।

সুনামগঞ্জ জেলায় পুলিশের করোনা প্রতিরোধ কর্মকান্ড। ছবি : সংগ্রহ

বৈশ্বিক মহামারি নভেল করোনা ভাইরাসের বিস্তার ঠেকাতে সরকারের পক্ষ থেকে বারবার ঘোষণার পরও মানুষকে ঘরে রাখা যাচ্ছে না। দেশব্যাপী হাট-বাজার ও টং দোকানে এখনো মানুষকে আড্ডা আর খোশগল্পে মেতে থাকতে দেখা যাচ্ছে। বাধ্য হয়ে মঙ্গলবার (২৪ মার্চ) রাত থেকে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে কঠোর ভূমিকা নিতে দেখা গেছে। কোথাও কোথাও দোকানপাট বন্ধ করে লাঠিচার্জ করে মানুষকে ঘরে যেতে বাধ্য করেছে।

বাংলাদেশের বিভিন্ন জেলায় পুলিশের মাস্ক বিতরণ না করে Action শুরু। ছবি : সংগ্রহ

করোনা সংক্রমণ মোকাবিলায় মঙ্গলবার সন্ধ্যা থেকে রাজধানী ঢাকা ও দেশের বিভিন্ন নগর, এলাকা, হাট-বাজারে পুলিশকে টহল দিতে দেখা গেছে। অপ্রয়োজনীয় দোকান বন্ধ করে দিয়েছে। এছাড়া বাইরে হাঁটাহাঁটি ও আড্ডারত মানুষকে ঘরে যেতে বাধ্য করেছে।

রাজধানীর মিরপুর মডেল থানা যেসব বাড়িতে বিদেশফেরত বাংলাদেশি নাগরিক রয়েছেন, সেসব বাড়িতে ব্যানার টাঙিয়ে দিয়েছে। শেরেবাংলা নগর থানা বিভিন্ন মহল্লায় মাইকিং করে সবাইকে বাসায় থাকতে অনুরোধ করেছে। সড়কের পাশের টং দোকান বন্ধ রাখার জন্য অনুরোধ করেছে।

এছাড়াও ডিএমপির তেজাগাঁও বিভাগের আদাবর, মোহাম্মদপুর এলাকায় পুলিশ হ্যান্ড মাইক দিয়ে ঘোষণা দিয়ে করোনায় যেন আক্রান্ত না হয় এজন্য নগরবাসীকে বাসায় থাকার আহ্বান জানিয়েছে। দুই-একটি সড়কে লাঠিচার্জও করেছে পুলিশ।

ভারতের পশ্চিমবঙ্গে করোনা প্রতিরোধে পুলিশ নিম্নবিত্ত সাধারণ মানুষের উপর লাঠি চার্চ করছে। ছবি : সংগ্রহ

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল সবাইকে সরকারি নিষেধাজ্ঞা মেনে চলার আহ্বান জানিয়ে মঙ্গলবার বলেন, ‌‌করোনা প্রতিরোধে সবাই ঘরে অবস্থান করুন। এই সংকটময় পরিস্থিতিতে আতঙ্ক কিংবা গুজব না ছড়িয়ে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে সহযোগিতার আহ্বানও জানান তিনি।

ভারতের পশ্চিমবঙ্গে করোনা পরিস্থিতির মধ্যে দুধ কিনতে যাওয়া লাল নামের এক যুবক পুলিশের লাঠির আঘাতে মৃক্যুবরণ করেছে। ছবি : সংগ্রহ

করোনা প্রতিরোধের জন্য সস্ত্রবাহিনী এবং পুলিশের মধ্যে ভারতের মতোকরে মানুষকে লাঠি পেটা করছে নির্দয় ভাবে। ইতিমধ্যে গতকাল ২৫ মার্চ ভারতের পশ্চিমবঙ্গের হাওড়া বাজারে দুধ কিন্তে যাওয়া একজন যুবক পুলিশের লাঠির আঘাতে মৃত্যু বরণ করেছে। যা সারা পৃথিবীতর ১৯৬টি দেশের মধ্যে ভারত ছাড়া অন্য কোন দেশের পুলিশের এমন লাঠিপেটার দৃশ্য দেখা যায় নি।

পাংশা উপজেলা কমপ্লেক্সে মেডিকেল অফিসার হিসেবে কর্মরত ডা. সুপ্রভ আহমেদকে লাঠিপেটা করা রাজবাড়ী পাংশা মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মো: আহসান উল্লাহ। ছবি : সংগ্রহ

বাংলাদেশের টাঙ্গাইলসহ বেশ কিছু এলাকায় ভারতের পশ্চিমবঙ্গের পুলিশকে অনুসরণ করে সাধারণ মানুষকে সহযোগিতা না করে লাঠিপেটা করছে! পশ্চিমবঙ্গের মূখ্যমন্ত্রী আগামী ৬ মাস তার দেশের নাগরিকদের সকল দায়িত্ব গ্রহণ করেছেন। যা অনুসরণ করে বাংলাদেশের রাজধানীসহ সারা দেশের সকল নাগরিকের দায়িত্ব সরকার এখনো নেয়নি।

করোনা প্রতিরোধে মাস্ক ছাড়াই পুলিশ এবং আনসার একজন সাধারণ মানুষকে প্রহার করছে। ছবি : সংগ্রহ

শুধু নিম্নবিত্ত মানুষের জন্য ১০ টাকা কেজি দরে চাইল বিক্রির ঘোষণা দিয়েছে। অথচ নিম্নবিত্ত মধ্যবিত্ত মানুষেরা হোম কয়ারেন্টাইনে থেকে খাবে কি এবং ভারাটিয়ারা বাড়ি ভাড়া দেবে কি ভাবে সেই প্রশ্নের উত্তর পাচ্ছে না। সাধারণ খেটে খাওয়া দিনমজুরদের কেনাকাটায় বাজার নিয়ন্ত্রণ করতে প্রয়োজনে পুলিশ লাঠিপেটা করতে পারে যাতে দেশের সকল মানুষের জন্য কল্যাণ হয়।

তাই বর্তমান পরিস্থিতি মোকাবেলায় সাধারণ মানুষের সহযোগিতা ছাড়া শুধু ভারতের পুলিশের মতো লাঠিপেটাই এর সমাধান দিতে পারবে না। সামাজিক দূরত্বর জন্য পুলিশ বাহিনীর আরো ধর্যশীল আচরণ এবং দেশের সকল মানুষের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় করোনা যুদ্ধের বিজয় এনে দিতে পারে।

আপনার মন্তব্য লিখুন

অনুগ্রহ করে আপনার মন্তব্য লিখুন
অনুগ্রহ করে এখানে আপনার নাম লিখুন