পদ্মাসেতুর ২১তম স্প্যান বসছে মধ্য জানুয়ারি

0
68
দেখা হয়েছে

মধ্য জানুয়ারিতে বসছে পদ্মাসেতুর ২১তম স্প্যান। জাজিরা প্রান্তের ৩২ ও ৩৩ নম্বর পিলারের ওপর বসানো হবে স্প্যানটি। সেতু কর্তৃপক্ষ বিষয়টি নিশ্চিত করেছে।

পদ্মাসেতুর দায়িত্বশীল এক প্রকৌশলী জানান, সেতুর ২১তম স্প্যান বসানোর প্রাথমিক তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছিল ১২ জানুয়ারি। কিন্তু তা এখন আর সম্ভব নয়। কারণ, সেতুর ৪০০ কেভি বৈদ্যুতিক লাইনের পাইল ড্রাইভ চলছে। এ বৈদ্যুতিক লাইনটি মাওয়া ফেরিঘাটের দিক দিয়ে যাবে। সেখানে সেতুর ক্রেনগুলো রয়েছে। এগুলো সরিয়ে নেয়ার পর জানুয়ারির ১৪ অথবা ১৫ তারিখ ২১তম স্প্যানটি বসানো সম্ভব হবে বলে আশা করা যাচ্ছে।

তিনি আরো বলেন, চলতি মাসের ১৫ জানুয়ারি ছাড়াও ২০ জানুয়ারি মাওয়া প্রান্তের ৪ ও ৫ নম্বর পিলার এবং ৩০ জানুয়ারি জাজিরা প্রান্তের ৩১ ও ৩২ নম্বর পিলারে আরো দুটি স্প্যান বসানোর কথা রয়েছে।

এদিকে সেতুর সর্ব প্রথম তৈরি করা ১এফ স্প্যানটি ৬ ও ৭ নম্বরের নিজস্ব পিলারে সফলভাবে স্থাপন করা হয়েছে। গত ৬ জানুয়ারি দুপুরে এটি স্থানান্তরিত করা হয়। স্থান সংকুলান না হওয়ায় ১এফ স্প্যানটি অস্থায়ীভাবে সেতুর ৪ ও ৫ নম্বর পিলারে বসানো ছিল। এখন স্থায়ীভাবে এটি ৬ ও ৭ নম্বর পিলারের ওপর বসানো হয়েছে। এর আগে ৩১ ডিসেম্বর সেতুর ২০তম স্প্যান বসানোর মধ্য দিয়ে ৩ কিলোমিটার দৃশ্যমান হয় পদ্মাসেতু।

মোট ৪১টি স্প্যানের মধ্যে চীন থেকে মাওয়ায় এসেছে ৩৩টি স্প্যান। আরো দুইটি স্প্যান চীন থেকে ডিসেম্বরের ২৬ তারিখ বাংলাদেশের পথে রওনা হয়েছে। এটি নদী পথে বাংলাদেশে পৌঁছাতে ২১ দিন সময় লাগে। আশা করা যাচ্ছে, আগামী ৭ দিনের মধ্যে এ দুটি স্প্যানও মংলা বন্দরে এসে পৌঁছাবে। সেখান থেকে মাওয়া এসে পৌঁছাতে আরো দুই থেকে তিনদিন লাগবে। বাকি ছয়টি স্প্যান চীনে তৈরি হয়ে আছে যা পাঠানোর প্রক্রিয়া চলমান আছে। মার্চের মধ্যে সব স্প্যান দেশে চলে আসবে বলে জানিয়েছে সেতু কর্তৃপক্ষ।

এদিকে বসানো স্প্যানের নিচের তলায় রেলওয়ে স্ল্যাব এবং ওপরের তলায় রোডওয়ে স্ল্যাব বসানোর কাজও দ্রুত এগিয়ে চলেছে। ২৯১৭টি রোডওয়ে স্ল্যাবের মধ্যে  ২০৯৭টি তৈরি করা হয়েছে। আর ২৯৫৯টি রেলওয়ে স্ল্যাবের মধ্যে সব তৈরি হয়ে গেছে। এর মধ্যে ১৬৮টি রোডওয়ে স্ল্যাব এবং ৪৯৫টি রেলওয়ে স্ল্যাব এরই মধ্যে বসানো হয়েছে।

এছাড়া মূল সেতুর মোট ৪২টি পিলারের মধ্যে ৩৬টি পিলারের কাজ শতভাগ শেষ হয়েছে। বাকি রয়েছে মাত্র ৬টি পিলার। ৮, ১০, ১১, ২৬, ২৭ এবং ২৯ নম্বর পিলার এখন পদ্মার তলদেশ থেকে উপরের দিকে উঠছে। ৮, ১০ , ১১ এবং ২৯ চারটি পিলারের কাজ ফেব্রুয়ারির মাঝামাঝি শেষ হবে। অবশিষ্ট ২৬ এবং ২৭ নম্বর পিলারের কাজ এপ্রিলের মধ্যে শেষ হবে।

৬ দশমিক ১৫ কিমি দৈর্ঘ্যের দ্বিতল সেতুটি কংক্রিট ও স্টীল দিয়ে নির্মাণ করা হচ্ছে। এই সেতুর দু’প্রান্তে আরো প্রায় তিন কিলোমিটার সংযোগ সেতু রয়েছে। সেই সংযোগ সেতুর কাজের অগ্রগতিও সন্তোষজনক।

আপনার মন্তব্য লিখুন

অনুগ্রহ করে আপনার মন্তব্য লিখুন
অনুগ্রহ করে এখানে আপনার নাম লিখুন